শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে: আমির হোসেন আমু

0

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র, সাবেক মন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের দায়িত্ব হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করা । সংগঠনের শক্তি বৃদ্ধির মাধ্যমে দলকে সুসংগঠিত করতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। বিএনপি মুখে বলে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই, এটা তাদের মিথ্যাচার। তারা নিজেরাই তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিশ্বাস করে না। কারণ এরশাদের পতনের আগে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এক সঙ্গে আন্দোলন করেছিল। তখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের রূপরেখা তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু বিএনপি ক্ষমতায় এসে তাদের কথা রাখলেন না। তারা ক্ষমতা কুক্ষিগত করার জন্য তত্ত্ববধায়ক সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিল। শনিবার দুপুরে ঝালকাঠিতে আওয়ামী লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি দেশের বিরুদ্ধে এখনো ষড়যন্ত্র করছে দাবি করে আওয়ামী লীগের বর্ষিয়ান নেতা আমির হোসেন আমু বলেন, দেশের উন্নয়ন দেখে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি নানাভাবে ষড়যন্ত্র করছে। তারা চাইছে এ দেশ পাকিস্তানের রূপরেখায় চলুক। এই অপশক্তিকে প্রতিহত করতে হবে। তাই দলীয় নেতাকর্মীদের সজাগ থাকতে হবে, আওয়ামী লীগ তাদের সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই আবারো ক্ষমতায় আসবে। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম । বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনু, আনিসুর রহমান। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম এর সভাপতিত্বে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির। শিল্পকলা একাডেমীর হলরুমে ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্তরের শতশত নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র, সাবেক মন্ত্রী আমির হোসেন আমু তার সদস্য পদ নবায়ন করার মাধ্যমে এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম বলেছেন, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদেরকে বিরোধী দলের অপরাজনীতি দক্ষতার সাথে মোকাবেলা করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারন করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা বাংালাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। বাংলদেশের উন্নয়ন দেখে ঈর্ষন্বিত হয়ে একটি গোষ্ঠী নতুন করে ষড়যন্ত্রে নেমেছে। তারা বলেছিল, পদ্মাসেতু নির্মাণ করতে পারবে না শেখ হাসিনা। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু করে দেখিয়েছেন, এটা আমাদের গৌরব। মনে রাখতে হবে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি যদি কোনভাবে ক্ষমতায় আসে, তাহলে আবারো লুটপাট, হামলা, নারী ধর্ষণসহ বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত হবে। সুযোগ পেলে তারা বাংলাদেশকে গিলে খেয়ে ফেলবে। ওরা মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধ্বংস করে দিবে। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যডভোকেট আফজাল হোসেন বলেন, আমরা সংগঠনকে তৃণমূল পর্যায়ে শক্তিশালী করতে চাই। একটি সংগঠনের সভা, সমাবেশ, মিছিল যেমন জরুরি, তেমনিভাবে একটি সংগঠনের শ্রীবৃদ্ধি ও সুশৃঙ্খল করাও জরুরি। তাই সবাইকে সদস্য নবায়ন করতে হবে। ঘরে ঘরে গিয়ে নতুন সদস্য সংগ্রহ করারও আহ্বান জানান তিনি। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য গোলাম রব্বানী চিনু বলেন, বাংলাদেশকে যারা শ্রীলংকা বানাতে চান, তাদের স্বপ্ন পূরণ হবে না। বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে এখন রোল মডেল। বিশ্বের বড় বড় নেতারা এখন জানতে চান, শেখ হাসিনা কিভাবে বাংলাদেশকে এতো সমৃদ্ধশালী করেছেন। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সদস্য পদ নবায়ন কার্যক্রম শুরু করেন। এছাড়াও নতুনদের সদস্য ফরম পূরণ করিয়ে দলের সদস্য করেন।

Share.

Leave A Reply